WordPress.org VS WordPress.com কোনটা ভালো ব্লগিং এর জন্য।

WordPress.org VS WordPress.com কোনটা ভালো ব্লগিং এর জন্য।

বর্তমান অনেকই ব্লগিং করতে গিয়ে এই সমস্যাই পড়ে , কোনটা দিয়ে শুরু করবো WordPress.org নাকি WordPress.com এটা এখন খুব জনপ্রিয় প্রশ্ন।  ব্লগ তৈরীর অনেক গুলো প্লাটফর্ম থাকলেও, বেশিরভাগ সময়ই বিতর্ক বাঁধে WordPress.org এবং WordPress.com নিয়ে।

 তাই আজ আমি আপনাদের WordPress.org VS WordPress.com নিযে বিস্তারিত জানানোর চেষ্টা করবো, আসা করি এ আর্টিকেল পড়লে বুঝতে পারবেন আপনার জন্য কোনটা ভালো হবে WordPress.org নাকি WordPress.com।

 ব্লগিং এর আগে এগুলা জানা খুবি জরুরি , কোনটা ব্যাবহার করলে আপনি বেশি নিয়ন্তন নিতে পারবেন কনটাই কম , জানা থাকলে ভবিষ্যৎ সমস্যা হওয়ার সম্ভাবনা কম থাকে। তো  আমি মূলত WordPress.org এবং WordPress.com এর সুবিধা ও অ-সুবিধা নিয়ে বিস্তারিত লিখার চেষ্টা করবো। আশা করি এতে আপনার সিদ্ধান্ত নিতে অনেকটাই সহজ হবে।

 অর্থাৎ আপনার কোনটা ব্যাবহার করা উচিৎ WordPress.org নাকি WordPress.com তা খুব সহজেই বুজতে পারবেন।

 Wordpress.org…… এক পরিসংখ্যান এর হিসাব অনুযায়ী দেখাযাই, বিশ্বের শীর্ষে থাকা ওয়েবসাইট গুলর মধ্যে প্রয় ৩৭% ওয়েবসাইট বানানো হয়েছে WordPress.org দিয়ে , কিন্তু আমি আপনাদের এই পরিসংখ্যান দেখিয়ে আপনাদের উপর কন কিছু চাপিয়ে দিতে চাই না।

প্রথমেই আমরা যেনে নেই WordPress.org সুবিধা এবং অসুবিধা।

সুবিধাঃ 

WordPress.org হচ্ছে একটি ফ্রি পিএইচপি এবং মাইএসকিউএল নির্ভর ওপেন সোর্স ওয়েব কনটেন্ট ম্যানেজমেন্ট সিস্টেম(CMS)। কিন্তু এটা ব্যাবহার করতে হলে পথমেই আপনাকে এটা ইন্সটল করতে হবে। আর তার জন্য প্রয়জন হবে Web hosting এবং domain যা মটেও ফ্রী নয়। 

WordPress.org অধিনে রয়েছে প্রচুর themes অ্যান্ড plugin যা অধিকাংশই ফ্রী । অনেক পেইড  themes/ plugin ও রয়েছে। যা ব্যাবহার করে আপনি আপনার ব্লগ নিজের ইচ্ছা অনুযায়ী customize করতে পাবেন।

 যেমনঃ আপনার হাতে থাকা স্মার্ট ফোনের কথা চিন্তা করুন, ফোন নতুন অবস্থাই অল্পকিছু আপ্স ছিল, কিন্তু আপনি আপনার প্রয়োজন অনুয়াই আপ্স ইন্সটল করে ব্যাবহার করতে পারেন। WordPress.org ঠিক তেমনি আপনি আপনার প্রয়োজন অনুযায়ী plugin দিয়ে প্রয়োজনীও কাজ করতে পারবেন।

 তাছাড়া WordPress.org রয়েছে বিশাল forum সাইড যেখানে আপনার সব সমস্যার সমাধান খুব সহজেই পেয়ে যাবেন। WordPress.org তে আপনার ওয়েবসাইট টি শুধু মাত্র আপনারই নিয়ন্ত্রণ থাকবে।

 আপনার ইচ্ছা মতো বিভিন্ন online tools যেমনঃ google analytics ব্যাবহার করতে পারবেন।  আবার google adsense এড করে অর্থ উপার্জন করতে পারবেন।  আপনি নিজের মত করে security system Update করতে পারবেন।

 তাতে আপনার ওয়েবসাইট টি নিরাপদ থাকবে। WordPress.com এ চেয়ে তুলনা মূলক কম খরচে এটা বানানো যাই।

Wordpress.org VS WordPress

WordPress.org কিছু অসুবিধা।

 আমরা জানি যে সব কিছুতেই ভালো/খারাপ ২টি বিষয় থাকে। তবে আমরা চাইলে এগুলা ইগনোর করতে পারি।

  WordPress সফটওয়্যার টি নিজ দায়িত্ব update করতে হবে। তবে এটা পানি পান করার মতোয় সহজ। 

security system নিজ দায়িত্ব দেখাশোনা করতে হবে, এ ক্ষেত্রে অনেক plugin পাবেন যা দিয়ে খুব সহজেই এই কাজ গুলা করতে পারবেন।  আলাদা Hosting নিতে হবে WordPress ইন্সটল করার জন্য। 

Hosting কি. Hosting কি ভাবে কাজ করে তা যানতে এই পোস্ট টি পড়ুন।

 এবং WordPress সফটওয়্যার টি নিজে ইন্সটল করতে হবে। যা পানি পান করার মতোয় সজা। আপনি চাইলে hosting provider রা এ কাজ টি করে দিবে।  so no problem. ওয়েবসাইট টি তে কন অনাকাঙ্ক্ষিত দুর্ঘটনা ঘটলে তার দায়ভার আপনাকেই নিতে হবে। এ ক্ষেত্রে অনেক ফ্রী plugin পাবেন যা দিয়ে আপনি খুব সহজেই নিয়মিত backup নিতে পারবেন। এবং সংরক্ষণ করতে পাবেন।

এ পর্যায় যেনে নেই WordPress.com সুবিধা এবং অসুবিধা।

WordPress.com মোট ৫ টি Plans রয়েছে  

 . Free

 . Personal

 . Premium 

 . Business

 . Ecommerce

 নিচের ছবি টি লক্ষ্য করুন।

Wordpress.org VS WordPress.com c

এখানে ওয়েবসাইট বানাতে হলে আপনাকে যে কন একটি plans বেছে নিতে হবে। 

সুবিধা: 

 Wordpress.com মূলত একটি hosting কোম্পানি যেখানে গিয়ে আপনি কন চিন্তা ভাবনা ছারাই একটি ওয়েবসাইট বানাতে পারবেন। মানে আপনার কন কিছু করতে হবে না । WordPress ইন্সটল করা থাকবে । আপনি শুধু হাল্কা চেঞ্জই করে আপনার ওয়েবসাইট টি বানাতে পারবেন । কন hosting এর চিন্তা করতে হবে না। Security নিয়ে ভাবতে হবে এ। WordPress আপডেট নিয়ে ভাবতে হবে না।

 অসুবিধাঃ  

 Business অথবা Ecommerce plan ব্যতীত আপনি তেমন কিছু এখানে করতে পারবেন না । ফ্রী প্লান এ অনেক সীমাবদ্ধতা রয়েছে মাত্র ৩ জি,বি, hosting ব্যাবহার করতে পারবেন, ৩ জি,বি শেষ হলে যে কন একটি প্লান নিতে হবে আপনাকে। 

ফ্রী প্লান এ আপনাকে একটি সাব-ডোমেইন দেওয়া হবে। যেমনঃ tech24update.wordpress.com তাছাড়া আপনার ফ্রী প্লান এ আপনার ওয়েবসাইট এ বিজ্ঞাপন দেখানো হবে, এবং তার বিনিময় আপনি কন টাকা পাবেন না। ফ্রী প্লান এ আপনি google adsense বা third party advertising ব্যাবহার করে টাকা ইনকাম করতে পারবেন না। শুধু মাত্র Business/Ecommerce plan এ পারবেন। 

themes অ্যান্ড plugin ইন্সটল এ রয়েছে সীমাবদ্ধতা ফ্রী প্লানএ। আপনি সব ধরনের ওয়েবসাইট বানাতে পারবেন না এখানে।

 যদি তারা মনে করে আপনার ওয়েবসাইট privacy policy মানছে না তবে তারা যেকন সময় আপনার ওয়েবসাইটি বন্ধ করে দিবে। অর্থাৎ আপনার ওয়েবসাইট  নিয়ন্ত্রণ অন্য এক জন এর কাছেও রয়েছে। Business অথবা Ecommerce প্লান ছারা footer এ powered by wordpress.com লিখা টি পরিবর্তন করতে পারবেন না। এ ছারাও বেশকিছু সমস্যা রয়েছে wordpress.com এ ।

কনটা তে কত খরচ.?

WordPress ব্যাবহার করে আপনি মাত্র ১৮০০ থেকে ২০০০ টাকা খরচ করে নিজের মনের মতো করে ওয়েবসাইট বানাতে পারবেন। নিজের ইচ্ছা মতো ডোমেইন দিয়ে। আপরদিকে wordpress.com ব্যাবহার করলে আপনাকে গুনতে হবে,

. Free$0.0 
. Personal$4 per monthbilled yearly($48)
. Premium$8 per monthbilled yearly($96)
. Business$25 per monthbilled yearly($300)
. Ecommerce$45 per monthbilled yearly(450)

,,,,,আশা করি আপনি আপনার প্রশ্নের উত্তর পেয়ে গেছেন। তবুও আমি বলবো আপনি যদি নিজের ব্যক্তিগত ওয়েবসাইড বানাতে চান তবে wordpress.com ব্যাবহার করতে পারেন।

 তাছাড়া প্রফেশনাল বা ইনকাম করতে চান তবে অবশই wordpress ব্যাবহার করুন । আমি এখানে WordPress.org এবং WordPress.com এর ভাল/খারাপ, সুবিধা/অসুবিধা বিষয় গুলো তুলে ধরার চেষ্টা করেছি ।

 সিধান্ত আপনাকেই নিতে হবে যে আপনি কনটা ব্যাবহার করবেন।

 তো বন্ধুরা পোস্ট টি পড়ে কি সিধান্ত নিলেন কনটা ব্যাবহার করবেন WordPress.org নাকি WordPress.com । বা কনটি আপনার কাছে সেরা মনে হল, কমেন্ট করে জানাতে ভুলবেন না।  ধন্যবাদ, ধৈর্য ধরে সম্পূর্ণ পোস্ট টা পড়ার জন্য।

ভি,পি,এন (Vpn) কি ?

(vpn) ভিপিএন শব্দটি একটি সংক্ষিপ্তরূপ এর পূর্ণরূপ হল virtual private network.
top view

Leave a Comment

%d bloggers like this: